যুদ্ধে যার জন্ম, অর্জনে-গর্জনে ৫০ বছরে বাংলাদেশ

 ২০২১-০৩-২৬ ১২:০১:৪৬   বিভাগ: এক্সক্লুসিভ

নাফ বার্তা ডটকম:

১৯৭১ সালে ঢাকা কলেজে ব্যবসায় শিক্ষার ছাত্র ছিলেন শফিকুল ইসলাম। তখন স্বাধীনতার জন্য দেশে শুরু হয় রক্তক্ষয়ী ও পাশবিক এক যুদ্ধ। এ অবস্থায় চুপচাপ বসে থাকতে পারেননি, ভারতে গেরিলা প্রশিক্ষণ নিয়ে ফিরে এসে তিনি প্রাণবাজি রেখে লড়াই শুরু করেন পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে।

শফিকুল ইসলাম একটি আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থাকে বলেন, এটা ছিল পুরোপুরি ধ্বংসযজ্ঞের সময়। আমাদের সেতু-সড়ক সব ধ্বংস হয়ে যায়, নারীদের ধর্ষণ করা হয়, শহরগুলো ছিল অবরুদ্ধ। হাজার হাজার বাড়িঘর ও দোকানপাট পুড়িয়ে দেয়া হয়।

যুদ্ধের নয় মাস পরে আসে কাঙ্ক্ষিত বিজয়। এরপর কেটে গেছে ৫০টি বছর। ৬৭ বছর বয়সী বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম আজ অ্যারাইভাল ফ্যাশন লিমিটেড নামে একটি পোশাক কারখানার পরিচালক। ঢাকার অদূরে আড়াই একর জমিতে গড়ে উঠেছে নতুন প্রজন্মের কারখানাটি। সেখানে কাজ করছেন প্রায় তিন হাজার কর্মী। তাদের হাতে তৈরি পোশাক রফতানি হচ্ছে ইউরোপ-আমেরিকায়।

শফিকুল ইসলামের এমন সাফল্য যেন গোটা বাংলাদেশেরই প্রতিচ্ছবি। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে দাঁড়িয়ে ১৬ কোটি মানুষের এই দেশ আজ প্রশংসার ফুলঝুরিতে ভাসছে। যদিও ব্যাপক দ্বন্দ্ব-সংঘাতে জন্ম নেয়া দেশটি এর মধ্যে ভয়াবহ দুর্ভিক্ষ, দারিদ্র্য, সামরিক অভ্যুত্থান, রাজনৈতিক সহিংসতার মতো বড় বড় সংকটের মুখে পড়েছে; তারপরও বিশেষজ্ঞদের চোখে বাংলাদেশ তার জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে অভাবনীয় উন্নতি করেছে।

লাখ লাখ মানুষকে দারিদ্র্য থেকে তুলে এনে বাংলাদেশ আজ এশিয়ার অন্যতম দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতিতে পরিণত হয়েছে। এর বড় কৃতিত্ব অবশ্যই এ দেশের পোশাকশিল্পের।

একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় এদেশের অন্তত ৩০ লাখ মানুষ শহীদ হন, নির্যাতিত হন দুই লাখেরও বেশি মা-বোন, প্রাণভয়ে দেশ ছাড়তে বাধ্য হন আরও অসংখ্য মানুষ। ভয়াবহ সেই যুদ্ধের আরেক ভুক্তভোগী ছিল অর্থনীতি।


আর্কাইভ
March 2021
S S M T W T F
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28  

ফেইসবুকে আমরা