এমসি কলেজে গণধর্ষণ: রাজনসহ গ্রেপ্তার ৫

 ২০২০-০৯-২৮ ১১:২৭:৫২   বিভাগ: অন্যান্য

নাফবার্তা ডেস্ক []

সিলেটের ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠান মুরারিচাঁদ (এমসি) কলেজের হোস্টেলে স্বামীকে আটকে রেখে নববধূকে গণধর্ষণের ঘটনায় রাজন আহমদ (২৮) নামের আরেক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এনিয়ে এই মামলায় প্রধান আসামি সাইফুর রহমানসহ মোট ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হলো।

আজ সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) মধ্যরাতে সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জের কচুয়া নয়াটিলা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-৯। এ সময় রাজনকে পালাতে সহযোগিতা করায় আইনুল ইসলাম নামের আরও এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়।

রাজন ওই তরুণীকে ধর্ষণ মামলার অজ্ঞাত আসামি ছিলেন।  ছায়া তদন্তে নেমে র‌্যাব এ তথ্য নিশ্চিত হয়ে রাজনকে গ্রেপ্তার করে।

র‌্যাব-৯ জানায়, এ নিয়ে এই ঘটনায় ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হলো। এর মধ্যে ৪ জন মামলার এজাহারভুক্ত আসামি। আর অপরজন মামলার অজ্ঞাতনামা আসামি। গ্রেপ্তারকৃত রাজন তার এক আত্মীয়ের বাড়িকে পালিয়ে ছিল। আগে গ্রেপ্তার হওয়া আসামির দেওয়া তথ্যে এবং প্রযুক্তির মাধ্যমে তার অবস্থান শনাক্ত করে পরে রাত ১টার দিকে রাজন ও তার সহযোগী আইনুলকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পর তাদের সিলেট নিয়ে আসা হয়েছে।

এর আগে গতকাল রোববার সন্ধ্যায় এ মামলার আরেক আসামি মাহবুবুর রহমান রনিকে হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-৯ এর একটি দল। একই সময়ে মামলার অন্যতম আসামি রবিউল হাসানকে নবীগঞ্জ উপজেলা থেকে গ্রেপ্তার করে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এছাড়া রোববার সকালে সুনামগঞ্জের ছাতক খেয়াঘাট এলাকা থেকে গণধর্ষণ ও অস্ত্র মামলার প্রধান আসামি সাইফুর রহমানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। আর অর্জুন লস্করকে গ্রেপ্তার করা হয় হবিগঞ্জের মাধবপুরের মনতলা থেকে।

উল্লেখ্য, গত ২৫ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) বিকেলে স্বামীর সঙ্গে এমসি কলেজে প্রাইভেট গাড়ি নিয়ে বেড়াতে গিয়েছিলেন নববধূ। সন্ধ্যায় তাদের কলেজ থেকে ছাত্রাবাসে ধরে নিয়ে যায় ছাত্রলীগের ৬-৭ জন নেতাকর্মী। এরপর দুইজনকে মারধর করা হয়। একই সঙ্গে স্বামীকে আটকে রেখে তার সামনে স্ত্রীকে গণধর্ষণ করে তারা। খবর পেয়ে রাতে ছাত্রাবাস থেকে ওই দম্পতিকে উদ্ধার করে পুলিশ। ধর্ষণের শিকার হওয়া নারীকে সিলেটের ওসমানী হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় পরের দিন ২৬ সেপ্টেম্বর (শনিবার) সকালে ধর্ষণের শিকার নারীর স্বামী বাদি হয়ে সিএমপির শাহপরান থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা ছাত্রলীগের ৬ নেতাকর্মীসহ অজ্ঞাত আরও ৩ জনকে আসামি করা হয়। এই মামলা এজাহারনামীয় আরো ২ আসামি গ্রেপ্তার হতে বাকি আছে। তারা হলেন- তারেক আহমেদ ও মাহফুজুর রহমান মাসুম।


আর্কাইভ
September 2020
S S M T W T F
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031  

ফেইসবুকে আমরা